পরীক্ষা পদ্ধতি

ভর্তির জন্য নির্বাচনী পদ্ধতিঃ


    ভর্তি হতে ইচ্ছুক প্রার্থী/প্রার্থিনীকে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক ভর্তির নির্দিষ্ট সময় সীমা অনুসারে জনশক্তি ব্যুরোর প্রশাসনিক অনুমোদনক্রমে জাতীয় দৈনিক পত্রিকা সমূহে ভর্তি বিজ্ঞপ্তিসহ স্থানীয় ভাবে বিভিন্ন রূপে প্রচারনা করা হয়। বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নির্ধারিত সময় সীমানুসারে বোর্ডের নির্দ্ধারিত ফরম সংগ্রহ করতঃ যথাযথ ভাবে পূর্বক চাহিদা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র সংযুক্ত করে দরখাস্ত জমা দিতে হয়। দরখাস্ত সমূহ পরীক্ষা নিরীক্ষা করে যাচাই করা হয়। অতঃপর বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড নিয়ন্ত্রিত ভর্তি নির্বাচনী লিখিত, কায়িক প্রবনতা ও মৌখিক পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মেধানুসারে ফলাফল ঘোষিত হয় এবং সরকার নির্দ্ধারিত হারে বৎসরে এককালীন ফিস জমা দিয়ে ভর্তি হতে হয়।

পরীক্ষা পদ্ধতিঃ


    ০২ বৎসর মেয়াদী এস,এস,সি (ভোকেশনাল) শিক্ষাক্রমে নবম শ্রেণীতে অধায়নরত শেষে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর অধীনে বোর্ড সমাপনী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করতে হয়। নবম শ্রেণী বোর্ড সমাপনী পরীক্ষায় কৃতকার্য হলে দশম শ্রেণীতে উর্ত্তীণ হবে। এই পরীক্ষায় অংশ গ্রহনকারী সকল ছাত্র/ছাত্রীকে পরীক্ষার ফল প্রকাশিত না হওয়া পর্যন্ত দশম শ্রেণীতে অধ্যায়ন করার সাময়িক অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু যে সকল ছাত্র/ছাত্রী তিন বা ততোধিক বিষয়ে অকৃতকার্য হবে তাদের দশম শ্রেণীতে সাময়িক অধ্যায়নের অনুমতি বাতিল করা হবে। নবম শ্রেণীর বোর্ড সমাপনী পরীক্ষায় দুইটি বিষয়ে অকৃতকার্য্য হলেও তাদেরকে দশম শ্রেণীতে ক্লাশ করার অনুমতি দেওয়া হয়্ কিন্তু তাদেরকে দশম শ্রেণীর বোর্ড সমাপনী পরীক্ষার নির্দ্ধারিত বিষয় এর সাথে অকৃতকার্য্য বিষয়/বিষয়াদির পরীক্ষায় পুনরায় অংশগ্রহন করতে হবে। এইরূপ ছাত্র/ছাত্রী নবম শ্রেণীর বিষয়/ বিষয়াদিতে উত্তীর্ণ হলে তাকে নবম শ্রেণীতে কৃতকার্য্য ঘোষণা করা হবে। কিন্তু নবম শ্রেণীর কোন বিষয়ে উত্তীর্ণ না হলে এবং দশম শ্রেণীর সকল বিষয়ে পরীক্ষায় কৃতকার্য্য হলেও দশম শ্রেণীর পরীক্ষায় কৃতকার্য্য ঘোষণা করা হবে না। এখানে উল্লেখ্য যে, আউট (বহিস্কার) করা হয়।

ধারাবাহিক মূল্যায়নঃ


    ব্যবহারিক ও তাত্ত্বিক বিষয় অথবা বিষয়ের তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক অংশের মোট নম্বরের ৫০% নম্বর বোর্ড সমাপনী পরীক্ষার জন্য এবং ৫০% নম্বর ধারাবাহিক মূল্যায়নের জন্য নির্ধারিত থাকে।

(ক)    বিষয়/বিষয়াদির ব্যবহারিক অংশের ধারাবাহিক মূল্যায়ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ সম্পন্ন করবে এবং নম্বর বিন্যাস নিম্নরূপ ভাবে মোট অনুমোদন করেছে। মোট নম্বরের শতকরা হার ঃ
    ১) বর্ষ মধ্য পরীক্ষা ২০% ২) জব এক্সপেরিমেন্ট ৬০% ৩) জব এক্সপেরিমেন্ট রিপোর্ট ০৫% ৪) মৌখিক পরীক্ষা ০৫% ৫) হাজির ও আচরণ ১০% = মোট ১০০%।
(খ)    তাত্ত্বিক বিষয়/ বিষয়াদির তাত্ত্বিক অংশের ধারাবাহিক মূল্যায়ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ সম্পন্ন করে এবং নম্বর বিন্যাস নিম্নরূপ। মোট নম্বরের শতকরা হার ঃ
(গ)    বোর্ড পরীক্ষায় ব্যবহারিক ও তাত্ত্বিক পরীক্ষার তারিখ বোর্ড যথারীতি ঘোষনা করা হয়ে থাকে?
(ঘ)    বোর্ড পরীক্ষায় ব্যবহারিক ও তাত্ত্বিক পরীক্ষায় তারিখ বোর্ড কর্তৃক যথারীতি ঘোষনা করা হয়ে থাকে।
(ঙ)    ক্লাশ চলাকালে ১৮তম সপ্তাহে ব্যবহারিক ও তাত্ত্বিক উভয় অংশের উপর বর্ষ মধ্য পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।
(চ)    সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান বর্ষ মধ্য পরীক্ষায় পুর্বে ও পরে তাত্ত্বিক বিষয়ের উপর মোট ০৪টি শ্রেণী পরীক্ষা ও ০৪টি কুইজ পরীক্ষা গ্রহন করেন। শ্রেণী পরীক্ষার তারিখ শিক্ষক ছাত্রদের পূর্বেই ঘোষনা করবেন এবং নির্ধারিত পিরিয়ডে এই পরীক্ষা গ্রহন করা হয়। কুইজ পরীক্ষা ক্লাশ চলাকালীন যে কোন সময়ে গ্রহন করবেন।
(ছ)    নবম ও দশম শ্রেণীতে ধারাবাহিক মূল্যায়নে কোন ছাত্র/ছাত্রী প্রতি বিষয়ের তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক অংশে পৃথক বাবে শতকরা ৩৩ নম্বরের কম পেলে তাকে বোর্ড সমাপনী পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের অনুমতি দেওয়া হবে না (নবম শ্রেণীর ক্ষেত্রে)। তবে যে শিক্ষা বর্ষে ধারাবাহিক মূল্যায়নে অকৃতকার্য্য হয়েছে তার অব্যবহিত পরের শিক্ষা বর্ষে পুনরায় ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করতে পারবে এবং দশম শ্রেণীর বেলায় যে শিক্ষা বর্ষে ধারাবাহিক মূল্যায়নে অকৃতকার্য্য হবে তার অব্যবহিত পরের শিক্ষা বর্ষে পুনরায় দশম শ্রেণীতে ভর্তি হতে পারবে।

Updated: 13/07/2015 — 4:40 am

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Technical Training Center (TTC), Bogra © 2015 Build: Time Corporation, Borogola, Bogra.
%d bloggers like this: